Thursday , April 25 2024
Breaking News

ঢাবিতে ব্যর্থ হয়ে জাবির ভর্তি পরীক্ষায় দ্বিতীয় হলেন মনসুর

জাবি প্রতিনিধি:

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২২–২৩ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদভুক্ত ই ইউনিটে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেছেন ফরিদপুরের সৈয়দ মনসুর আলী।

মঙ্গলবার (২০জুন) বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদভুক্ত ‘ই’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ হয়।

সৈয়দ মনসুর আলীর বাড়ি ফরিদপুর জেলার বোয়ালমারী উপজেলার পরমেশ্বরদী ইউনিয়নে। পিতা  বাবুল সৈয়দ ও মাতা রাজিয়া বেগমের তৃতীয় সন্তান তিনি। নবম শ্রেণীতে পড়াকালীন তিনি বাবাকে হারান। মায়ের অনুপ্রেরণায় পড়ালেখা চালিয়ে যান তিনি।

মনসুর জয়পাশা সৈয়দ ফজলুল হক একাডেমি থেকে মাধ্যমিক এবং সরকারি রাজেন্দ্র কলেজে থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় অংশ নেন। উভয় পরীক্ষায়ই তিনি জিপিএ ৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হন।

মনসুরের ইচ্ছা ছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার। সেই লক্ষ্য তিনি ফরিদপুরের স্থানীয় কোচিং এ ভর্তি হন। কিন্তু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পাননি তিনি। কিন্তু আশাহত না হয়ে নিয়মিত চালিয়ে গেছেন পড়াশোনা। এরপর একে একে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ব্যবসা শিক্ষা অনুষদে ১৯ তম গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষায় ৫৩ তম এবং চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ২২৬ তম হন। তবে তার সবথেকে বড় সাফল্য ধরা দেয় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদে ২য় স্থান অধিকার করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ না পাওয়ায় হতাশ ছিলেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে মনসুর বলেন, ‘আমার মূল লক্ষ্য ছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়া। তাই আমি একটু চাপে ছিলাম পরীক্ষার সময়। এতে আমার পরীক্ষা খারাপ হয়ে যায়।পরীক্ষার পরেই বুঝতে পেরেছিলাম হবে না। তাই একটু হতাশা কাজ করছিলো। কিন্তু এরপর মনোবল শক্ত করে আবার পড়তে শুরু করি।’

কতক্ষণ পড়ালেখা করতেন এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘আমার পড়ালেখা নির্দিষ্ট কোন সময় ছিল না। প্রতিদিনের পড়া প্রতিদিন করার চেষ্টা করতাম।’

সাফল্যের গল্প বলতে গিয়ে মনসুর জানান, ভর্তি পরীক্ষা জন্য তিনি দ্বাদশ শ্রেনী থেকে পড়া শুরু করেন। যেহেতু বাবা ছিলেন না তাই মা-ই তাকে অনুপ্রেরণা জুগিয়েছেন পড়ালেখার । তবে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির ক্ষেত্রে পড়ালেখায় সবচেয়ে সাহায্য করেছেন তার প্রিয় শিক্ষক রাকিবুল ইসলাম তুষার।

মনসুরের ইচ্ছা জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাববিজ্ঞান বিভাগে  ভর্তি হবেন। ভালো ফলাফল করে ভবিষ্যতে সুনামধন্য মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানিতে কাজ করতে চান তিনি ।

বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তিতে ভর্তি অনুজদের জন্য পরামর্শে তিনি বলেন, ‘ভর্তি পরীক্ষায় সবচেয়ে জরুরি চাপ মুক্ত থাকা  ও নিজের প্রতি বিশ্বাস রাখা। আমি সবচেয়ে চাপমুক্ত ছিলাম  জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি  পরীক্ষায় তাই এখানে  সবচেয়ে  ভালো ফলাফল হয়েছে।’

উল্লেখ্য গত সোমবার (১৯জুন) ই ইউনিটের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। ছেলে ও মেয়েদের দুইটি আলাদা শিফটের পরীক্ষায় পৃথকভাবে ফলাফল প্রকাশিত হয়৷

এছাড়াও

সাংবাদিককে পেটানোর অভিযোগ তিতুমীর কলেজ ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে

শেষবার্তা ডেস্ক : তিতুমীর কলেজ ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে সময়ের আলোর নিজস্ব প্রতিবেদক সাংবাদিক সাব্বিরকে রড, …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *