Monday , June 17 2024
Breaking News

ইফতারের সময়েও দায়িত্ব পালন করেন ট্রাফিক পুলিশ সদস্যরা:ডিএমপি কমিশনার

নিজস্ব প্রতিনিধি :
ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক বলেছেন, নগরবাসীকে প্রিয়জনের সঙ্গে স্বস্তিতে ইফতার করতে দ্রুত গন্তব্যে পৌঁছে দিতে ইফতারের সময়েও দায়িত্ব পালন করেন ট্রাফিক পুলিশ সদস্যরা, তারা রাস্তায়ই সারেন ইফতার।
 বৃহস্পতিবার (৬ এপ্রিল) রাজধানীর তেজগাঁওয়ের বিজয় স্মরণি মোড়ে ট্রাফিক পুলিশের সম্মানে তাদের সঙ্গে ইফতারে শরিক হয়ে তিনি এ কথা বলেন।
ডিএমপি কমিশনার বলেন, সামনেই পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর। একারণে কর্মব্যস্ততা বেড়েছে ঢাকা মহানগরীর বাসিন্দাদের। পাল্লা দিয়ে বেড়েছে রাস্তার যানজটও। সন্ধ্যা নামার আগেই অনেকে বাসায় ফিরতে চান। রাস্তায় থাকে মানুষের ভিড়। একারণে রাস্তায় বাড়ে যানবাহনের চাপ। সেই যানজট নিরসনে হিমশিম খেতে হয় ট্রাফিক পুলিশ সদস্যদের। এরপরও ঘরমুখো মানুষ যেন ইফতারের আগেই গন্তব্যস্থলে পৌঁছাতে পারে এজন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন তারা। সাধারণ মানুষ তাদের প্রিয়জনদের সঙ্গে ইফতার করতে পারলেও, ট্রাফিক পুলিশ সদস্যদের প্রিয়জনদের সঙ্গে ইফতারের সুযোগ হয় না। ইফতারের সময়ও তাদের ডিউটি করে যেতে হয়। এর ফাঁকে কোনো ভাবে রাস্তায়ই সেরে নিতে হয় ইফতার। রাস্তায় দাঁড়িয়ে-দাঁড়িয়ে ইফতার করেন তারা। বসার সময়ও পান না তারা। ইফতারের ফাঁকেই যানজট নিয়ন্ত্রণ করতে হয়ে তাদের।
ইফতারের সময়ও ট্রাফিক পুলিশ সদস্যদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা উল্লেখ করে কমিশনার বলেন, ইফতারের সময় সবাই বাসায় ইফতার করার জন্য গাড়ি নিয়ে ছুটছে। কিন্তু আমাদের ট্রাফিক পুলিশ সদস্যরা বিভিন্ন ট্রাফিক সিগনালে দাঁড়িয়ে থাকে  যাতে সবাই স্বস্তিতে বাসায় গিয়ে পরিবার-পরিজন নিয়ে ইফতার করতে পারে। এ সময় তারা একহাতে পানির বোতল নিয়ে ইফতার করে এবং অন্যহাতে সিগনাল দিয়ে গাড়ি চলাচল স্বাভাবিক রাখছে। তাদের এই দায়িত্ব পালন শুধু দেশের প্রতি ও দেশের জনগণের প্রতি।
নগরবাসীর উদ্দেশ্যে ডিএমপি কমিশনার বলেন, আপনারা শুধু ট্রাফিক পুলিশের দোষ-ত্রুটি দেখেন। কিন্তু তারা যে অক্লান্ত পরিশ্রম করে আপনাদের সেবায় নিয়োজিত থাকে সেই বিষয়টি মাথায় রেখে মানবিক দৃষ্টিতে দেখবেন ও আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়ার আহবান জানান ডিএমপির এই প্রধান কর্মকর্তা।
ইফতারের আগে অসহায়, দরিদ্র ও পথশিশুদের মাঝে ইফতার বিতরণ করেন ডিএমপি কমিশনার। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (অ্যাডমিন) এ কে এম হাফিজ আক্তার, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) মো. মুনিবুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (সিটিটিসি) মো. আসাদুজ্জামানসহ ডিএমপির যুগ্ম-পুলিশ কমিশনার, উপ-পুলিশ কমিশনার(ডিসি) ও বিভিন্ন পদমর্যাদার কর্মকর্তারা।

এছাড়াও

আনোয়ারা উদ্যানে কোন স্থাপনা নয়, এটি পার্ক হিসেবে থাকবে: মেয়র আতিক

শেষবার্তা ডেস্ক : রাজধানী ফার্মগেটের আনোয়ারা উদ্যানে কোন স্থাপনা নির্মাণ করতে দেয়া হবে না, এটি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *