Wednesday , July 17 2024
Breaking News
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।পুরোনো ছবি

সিট বাণিজ্য, ভর্তি বাণিজ্য করে তাদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে:ওবায়দুল কাদের

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি :

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ইউনিভার্সিটি ল্যাবরেটরি স্কুল অ্যান্ড কলেজ প্রাঙ্গণে ‘স্বপ্ন ও সম্ভাবনার স্ফুলিঙ্গ—শেখ রাসেল’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ওবায়দুল কাদের বলেন, সিট বাণিজ্য, ভর্তি বাণিজ্য, টাকা নিয়ে পলিটিক্যাল রুম, এই সব যারা করে তাদের তালিকা তৈরি হচ্ছে। তাদের খবর আছে। তাদের ক্ষমা নাই। ছাত্রলীগের যেসব নেতাকর্মী আবাসিক হলে সিট বাণিজ্য, ভর্তি বাণিজ্য করে তাদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে । আজ বুধবার দুপুরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠপুত্র শহীদ শেখ রাসেলের ৫৯তম জন্মদিন উপলক্ষে এ আলোচনা সভায় আয়োজন করা হয়।

আওয়ামী লীগের নাম ভাঙিয়ে যারা অপকর্ম করছে তাদের হুঁশিয়ারি দিয়ে তিনি বলেন, দলকে সুনামের ধারায় ফিরিয়ে আনতে হবে। আওয়ামী লীগের নামে অপকর্ম করবেন না। যারাই অপকর্ম করছে তাদের এসিআর কিন্তু নেত্রীর কাছে জমা আছে। শেখ হাসিনার কাছে নমিনেশন চাইবেন, হিসাব আছে। যারাই অপকর্ম করে, গড ফাদারগিরি করে দলের দুর্নাম কামিয়েছেন, আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন তারা কিছুতেই পাবে না। এটা নেত্রীর পরিষ্কার নির্দেশ। খারাপ আছেন ভালো হয়ে যান, শুদ্ধ হয়ে যান।

দুর্ভিক্ষ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের প্রতিক্রিয়ার জবাবে তিনি বলেন, বৈশ্বিক পরিস্থিতির কথা তুলে ধরতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, আগামীতে দুর্ভিক্ষের সম্ভাবনা আছে। যে পূর্বাভাস দিয়েছে আইএমএফ ও বিশ্বব্যাংক। শেখ হাসিনা তো সেটাই বলেছেন। এখানে অন্যায় কী করেছেন? আর উনি দেখেছেন বাংলাদেশের দুর্ভিক্ষ।

তিনি বলেন, দেশে নাকি এখন দুর্ভিক্ষ হচ্ছে। কোথায় একজন মরেছে? সোমালিয়ায় মরেছে। সোমালিয়া গিয়ে দেখুন। বাংলাদেশকে সোমালিয়া বানাবেন না। বাংলাদেশ ইনশাআল্লাহ সোমালিয়া, আফগানিস্তান হবে না। বাংলাদেশে সেই পরিস্থিতি হয়নি। সংকটে আছে, সেটা প্রধানমন্ত্রী স্বীকার করেছেন। এ পর্যন্ত আল্লাহর রহমতে একটা লোকও মরেনি। আমাদের খাদ্য আছে, তেলের একটু সংকট আছে। কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করছি। ব্রুনাই থেকেও আমরা জ্বালানির ব্যাপারে সহযোগিতার চুক্তি করেছি।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আব্দুর রহমান, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য আনোয়ার হোসেন ও আনিসুর রহমান। অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক মোহাম্মদ আব্দুল হালিম। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপকমিটির সদস্য সচিব সুজিত রায় নন্দী।

সভায় শেখ রাসেলের নিজ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মাঝে মেধা বৃত্তি, দরিদ্র তহবিলে বিশেষ অনুদান ও শিক্ষার বিভিন্ন উপকরণ বিতরণ করা হয়। অনুষ্ঠানে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরাও উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়াও

যারা রাজাকারের পক্ষে শ্লোগানে নেতৃত্ব দিয়েছে তাদের বিরূদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

মো: আকাশ: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, কোটা আন্দোলনের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *