Sunday , April 21 2024
Breaking News

মনোযোগ বাড়ায় যেসব খাবার

লাইফস্টাইল বার্তা ডেস্ক :

পড়াশোনার ক্ষেত্রে বা পরীক্ষার আগে মোটামুটি অসম্ভবই বলা যায় যদিও খাবার নিয়ে অনেকের প্যাশন বা ফ্যাশন থাকে। কারণ খাবার প্রস্তুতের জন্য সময় দরকার। কিন্তু দেখা যায় পরীক্ষার আগে হাতে একদমই সময় থাকে না। পরীক্ষার আগে পড়াশোনা করার সময় নানা রকম ধারণা, তত্ত্ব, গাণিতিক যুক্তি প্রভৃতি নিয়ে আপনাকে ব্যস্ত থাকতে হয়। সুতরাং এ সময়ে দরকার পুষ্টিকর ও সুষম খাবার।

বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, আপনার মানসিক স্বাস্থ্য ঠিক রাখার জন্য সুনির্দিষ্ট কিছু খাবার আছে। বার্তা সংস্থা ইউএনবির এক প্রতিবেদনে সেসব খাবারের সংক্ষিপ্ত বিবরণ দেওয়া হয়েছে। চলুন দেখে নেই—

বাদামি চাল

নির্দ্বিধায় বলা যায় যে আপনি পড়াশোনা বা পরীক্ষার প্রস্তুতির সময় অনেক চাপের মুখে থাকেন। এ সময় আপনার মানসিক চাপ কমানোর জন্য আপনি বাদামি চালের ভাত খেতে পারেন।

বাদামি চালে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার ও অন্যান্য পুষ্টিগুণ আছে যা আপনাকে দীর্ঘক্ষণ পরিপূর্ণ রাখবে।

কলা

একটি মাঝারি সাইজের কলায় রয়েছে ১১০ ক্যালোরি, ১ গ্রাম প্রোটিন, ২৮ গ্রাম শর্করা, ১৫ গ্রাম প্রাকৃতিক সুগার, ৩ গ্রাম ফাইবার এবং ৪৫০ মিলিগ্রাম পটাশিয়াম।

এছাড়া কলা আপনার ব্লাড সুগারকে উন্নত করে এবং হজম শক্তি বাড়ায়। অনেকে ওজন কমানোর জন্যও কলা খেয়ে থাকেন। তাই শারীরিক পুষ্টি নিশ্চিত করতে আপনি দুটি বা তিনটি কলা খেতে পারেন।

ওটস

ওটসের স্বল্প জিআই আপনাকে কর্মচঞ্চল রাখবে দীর্ঘসময়। বিশেষ করে পরীক্ষার আগের দিনগুলোতে আপনি ওটস খেলে নিজেই পরিবর্তনটা বুঝতে পারবেন। এতে আছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা আপনাকে উদ্যমী করে তুলবে।

এছাড়া ওটস আপনার ত্বকের জ্বলুনি কমাতে সহায়তা করে, রক্তে সুগারের পরিমাণ কমায় এবং কোলন ক্যান্সারের ঝুঁকি প্রতিরোধ করে। তাই আপনি প্রতিদিন প্রায় ৫০ গ্রাম ওটস খেতে পারেন।

টমেটো

আপনার হয়তো নাম শুনে হাসি পাচ্ছে। কিন্তু আপনি জানেন কি টমেটোতে আছে ভিটামিন সি, পটাশিয়াম, কে১ এবং ভিটামিন বি৯। এছাড়া টমেটোতে আছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা আপনার বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধ করে এবং মস্তিষ্কের জন্য উপকারী। সুতরাং পরীক্ষার সময় আপনি বেশি করে টমেটোর সালাদ খেতে পারেন।

মাছ

মাছে রয়েছে ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড, ভিটামিন ডি, বি২, ফসফরাস, জিঙ্ক আয়রণ এবং ম্যাগনেসিয়াম। এছাড়া মাছে আয়োডিন ও পটাশিয়ামের গুরুত্বপূর্ণ উৎস। আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশনের মতে প্রতি সপ্তাহে অন্তত দুই দিন মাছ খাওয়া উচিত।

খাবার হিসেবে বেশি পরিমাণে মাছ গ্রহণ করলে আপনার মানসিক স্বাস্থ্য ভালো থাকবে এবং আপনি পড়াশোনায় বেশি মনোযোগ দিতে পারবেন।

ডিম

একটি ডিমে আছে ৭৫ ক্যালোরি, ৭ গ্রাম উঁচুমানের প্রোটিন, ৫ গ্রাম ফ্যাট। এ ছাড়া আছে আয়রন, ভিটামিন এবং মিনারেল।

ডিমে আরও রয়েছে মস্তিষ্কের জন্য প্রয়োজনীয় ভিটামিন বি১, বি১২। তাই নিয়মিত ডিম খেলে আপনার মস্তিষ্ক থাকবে স্বাস্থ্যবান এবং কর্মক্ষম। তাই প্রতিদিন আপনি একটি বা দুটি ডিম খেতে পারেন। আর বিশেষ করে পরীক্ষার আগে ডিম খেতে পারেন যেন আপনি হতোদ্যম হয়ে না পড়েন

সবুজ শাকসবজি

প্রায় সব ধরনের সবুজ শাকসবজিই ভিটামিন এ কে ই এবং সির উৎস। এ ছাড়া এসব শাকসবজি হৃদযন্ত্র ভালো রাখতে সহায়তা করতে পারে।

সবুজ শাকসবজিতে আরো আছে ফাইবার যা কোলেস্টোরেলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে এবং উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে। সর্বোপরি এসব শাকসবজি আপনার দেহমনে আনে এক সুস্থতার অনুভূতি। তাই পড়াশোনা নিয়ে মানসিক চাপে থাকলে বেশি করে সবুজ শাকসবজি খাবেন।

এছাড়াও

কাচকি মাছ খাওয়ার কিছু অসাধারন উপকার!

শেষবার্তা ডেস্ক : বাংলাদেশ নদীমাতৃক দেশ, তাই আমাদের আমিষের অন্যতম প্রধান উৎস মাছ। এজন্যই আমাদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *