Sunday , April 21 2024
Breaking News

মহানগর আওয়ামী লীগের মেয়াদোত্তীর্ন কমিটিতে চলছে থানা-ওয়ার্ড

শেষ বার্তা ডেস্ক :

ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের উত্তর ও দক্ষিণে আওয়ামী লীগের ১৪০ ওয়ার্ড ও ৫০টি থানা কমিটি ১৫ থেকে ২০ বছর পার হলেও সম্মেলনের মধ্য দিয়ে এখনও গঠিত হয়নি। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এই মহানগরে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক কাজ চলছে মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি দিয়েই। এতে হতাশ তৃণমূলের যোগ্য নেতারা। দ্রুত পূর্ণাঙ্গ কমিটি না হলে তার প্রভাব জাতীয় নির্বাচনে পড়বে বলে শঙ্কা জনপ্রতিনিধিদের।

আওয়ামী লীগের ঢাকা-৫ আসনের সংসদ সদস্য কাজী মনিরুল ইসলাম বলেন, আমরা তো সামনে নির্বাচনের মাঠে নেমে যাব। এখন যদি আমরা না জানি যে ওয়ার্ডের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদককে তাহলে আমরা কাদের নিয়ে ওই এলাকায় মিটিং করব। এতে করে আমাদের মধ্যে একটা ভুর বোঝাবুঝি হবে।

তবে, কমিটি না হওয়ার পেছনে পদ নিয়ে বাণিজ্যের অভিযোগও উঠেছে। যা অস্বীকার করছেন না মহানগর আওয়ামী লীগের দায়িত্বপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় নেতারাও।

এবিষয়ে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম জানান, যেহেতু আওয়ামী লীগ এখন রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় এ অবস্থায় এখন আওয়ামী লীগের একজন সামান্য বা ছোট সমর্থক যে সেও কিন্তু বড় পদ পাওয়ার লোভ কিন্তু তার আছে। এবং সেই লোভ সংবরণ করতে না পেরে সে অনেক সময় বিভিন্ন জায়গায় নানা ধরণের অফার দেয়। এসব এখন বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় এবং অভিযোগ আকারে এসেছে আমাদের কাছে।

মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের সভাপতির দাবি, পদ বাণিজ্য নয়, বরং তা ঠেকাতেই বাড়তি যাচাই বাছাই চলছে। এছাড়া, করোনা ও বিরোধী দলের আন্দোলন সামনে রেখে রাজনৈতিক ব্যস্ততায় কমিটি গঠন করা যায়নি।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমেদ মন্নাফী জানান, অনেক সুপারিশ আমাদের কাছে আসবে এবং আসছে সেখান থেকে যাচাই-বাছাই করে নিতে হবে। এই জন্য কমিটি করতে একটু দেরি হচ্ছে।

অন্যদিকে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান জানান, আমরা এখন আসলে এমপি সাহেবের বা কে আসবেন তার কথা চিন্তা করে কমিটি করতে চাই না। আমরা এমন লোকটা সিলেক্ট করতে চাই যে আসবে সে দলের দক্ষ কর্মী এবং দলের সিদ্ধান্তে আসবে।

দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের নির্দেশনা ছিল রমজানের আগেই নগর কমিটি ঘোষণার। কিন্তু তারিখ নির্ধারণ না হলেও নেতারা জানাচ্ছেন দ্রুতই দেওয়া হবে কমিটি।

জাতীয় নির্বাচনের বাকি আর মাত্র ৯ মাস। এরই মধ্যে রাজপথে নানা কর্মসূচিতে সরব আওয়ামী লীগ ও বিএনপি। ভোটের আগে পরিস্থিতি মোকাবিলায় রাজধানীতে শক্ত অবস্থান চায় সব দলই।

এছাড়াও

সোসাইটি-সমিতির সাথে সম্পর্ক স্থাপন করতে চাই: মেয়র আতিক

মো: সোলায়মান: রাজধানীর গুলশান-২ ডিএনসিসি নগর ভবন হলরুমে ঈদ উপলক্ষ্যে ডিএনসিসি এলাকার বিভিন্ন সোসাইটির দারোয়ানদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *