Tuesday , April 23 2024
Breaking News
প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগবিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান।পুরোনো ছবি

শেয়ারবাজারে কেন ভালো কোম্পানি আসে না,জানালেন সালমান এফ রহমান

অর্থনীতি বার্তা ডেস্ক : 

প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগবিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান বলেন, ভালো কোম্পানি শেয়ারবাজারে না আসার পেছনে দুটি কারণ ।তার দাবি, প্রথমত, কোম্পানিগুলোকে লভ্যাংশ দিতে হয়। দ্বিতীয়ত, শেয়ারের দর ভালো পাওয়া যায় না বলে তারা তালিকাভুক্ত হতে চায় না।বুধবার বিশ্ব বিনিয়োগকারী সপ্তাহ পালন উপলক্ষে এক ভার্চুয়াল আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন সালমান এফ রহমান।

প্রধানমন্ত্রীর এই বিনিয়োগ উপদেষ্টা বলেন, বাংলাদেশের শেয়ারবাজারে কেন ভালো কোম্পানি আসতে চায় না, সেটা বুঝতে আমি ভালো কোম্পানিগুলোর সঙ্গে কথা বলেছি। তারা আমাকে বলেছেন, শেয়ারবাজারে এলে শেয়ারের সঠিক মূল্য পাওয়া যায় না। আর সবচেয়ে বড় যে সমস্যা সেটা হচ্ছে, এই বাজার ডিভিডেন্ড ড্রাইভেন, ক্যাপিটাল গেইন ড্রাইভেন না। অর্থাৎ তালিকাভুক্ত হলে বিনিয়োগকারীদের লভ্যাংশ দিতে হবেই। কিন্তু ভালো কোম্পানিগুলো চায়, তাদের মুনাফা তারা আবার বিনিয়োগ করবে আর ব্যবসা বাড়াবে।’

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর সমিতি বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব পাবলিকলি লিস্টেড কোম্পানিজ বা বিএপিএলসি বিশ্ব বিনিয়োগকারী সপ্তাহ পালন উপলক্ষে এই আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বিএসইসি চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম। আরেক বিশেষ অতিথি ছিলেন বিএপিএলসির সাবেক সভাপতি আজম জে চৌধুরী।

সভাপতিত্ব করেন বিএপিএলসির বর্তমান সভাপতি নির্বাচিত এম আনিস উদ দৌলা। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন বিএপিএলসির সহসভাপতি অ্যাপেক্স ফুটওয়্যারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ নাসিম মঞ্জুর। অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, শেয়ারবাজারের গভীরতা বাড়াতে দরকার ভালো কোম্পানি তালিকাভুক্ত করা। কিন্তু নানা কারণে ভালো কোম্পানি দেশের শেয়ারবাজারে আসছে না। কারণগুলো চিহ্নিত করে ভালো কোম্পানিগুলোকে শেয়ারবাজারে আনার পদক্ষেপ নিতে হবে।

কয়েকজন আলোচক বলেন, বর্তমানে বিএসইসির যে লিস্টিং রেগুলেশন আছে, সেটা পরিবর্তন করা দরকার। এখন কোম্পানির শেয়ারের দাম নির্ধারণের যে পদ্ধতি আছে, সেটা ত্রুটিপূর্ণ। এই পদ্ধতিতে ভালো কোম্পানি ভালো শেয়ারের দাম পাচ্ছে না। তবে বিএসইসির চেয়ারম্যান বলেন, ‘আমাদের বর্তমানে যে পদ্ধতি আছে, সেটা আমরা পরিবর্তন করতে চাই না। কারণ আমরা চাই, সব কোম্পানি বাংলাদেশের শেয়ারবাজারে না আসুক। অনেক কোম্পানি আছে, তারা এই সুযোগ নিয়ে মানুষের টাকা মেরে দেবে। আমরা সেই সুযোগ বন্ধ করতে চাই।

তবে ভালো কোম্পানি আসতে চাইলে আমরা তাদের সুযোগ-সুবিধা দিয়ে বাজারে নিয়ে আসব। আমরা নিশ্চিত করব তারা যেন শেয়ারের ভালো দাম পায়। নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি আন্তর্জাতিক শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলোর সংঘের সদস্য। এই সংঘের নাম হচ্ছে ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেশন অব সিকিউরিটিজ কমিশনস বা আইওএসসিও। আইওএসসিওর সদস্য দেশগুলো তাদের দেশের বিনিয়োগকারীদের সচেতন করতে, বিনিয়োগ শিক্ষা বাড়াতে বিশ্ব বিনিয়োগকারী সপ্তাহ পালন করে থাকে। বিএসইসি ২০১৭ সাল থেকে বিশ্ব বিনিয়োগকারী সপ্তাহ বাংলাদেশে পালন করে আসছে।

এছাড়াও

আজকের মুদ্রা বিনিময় হার বাংলাদেশ টাকায়

শেষবার্তা ডেস্ক : বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের ব্যবসা-বাণিজ্য দিনকে দিন সম্প্রসারিত হচ্ছে। ব্যবসায়িক লেনদেন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *